মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
পাতা

র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটেলিয়ান

র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটলিয়ন (Rapid Action Battalion) বা র‌্যাব (RAB) বাংলাদেশের আভ্যন্তরিক সন্ত্রাস দমনের উদ্দেশ্যে গঠিত চৌকস বাহিনী। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অধীনে পরিচালিত এই আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ২০০৪ সালের ২৬ মার্চ গঠিত হয় এবং একই বছরের ১৪ এপ্রিল (পহেলা বৈশাখ) তাদের কার্যক্রম শুরু করে। বাংলাদেশ পুলিশ, বাংলাদেশের সেনা, নৌবিমান বাহিনীর সদস্যদের নিয়ে র‌্যাব গঠিত হয়। র‌্যাব-এর সদর দপ্তর ঢাকার উত্তরায় অবস্থিত। র‌্যাব এখন পর্যন্ত[কখন?]
৩,১৪৯টি অবৈধ অস্ত্র এবং ৩৬,০০০ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করেছে। র‌্যাব এই পর্যন্ত ৫০০ জনকে গ্রেপ্তার করেছে।

 

র‌্যাব মনোগ্রাম

১। জাতীয় ফুল (শাপলা) র‌্যাবের মনোগ্রামের শীর্ষভাগে অবস্থিত জাতীয় ফুল শাপলা। শাপলা বাংলাদেশের জাতীয় ফুল এবং বাংলাদেশের জাতীয় প্রতীক।

২। মনোগ্রামের সবুজ রংয়ের জমিনে লাল সূর্য। অনন্ত সবুজের দেশ বাংলাদেশের জাতীয় পতাকার সাথে মিল রেখে র‌্যাবের মনোগ্রামের সবুজ ও লাল রংয়ের জমিন নির্ধারণ করা হয়েছে। এলিট ফোর্স র‌্যাব এর প্রতিটি সদস্যের হৃদয়ে রয়েছে বাংলাদেশের পতাকার গৌরব সমুন্নত রাখার ‍বজ্র কঠিন প্রতিজ্ঞা।

৩। জাতীয় স্মৃতিসৌধ। মনোগ্রামের কেন্দ্রে অবস্থিত স্মৃতিসৌধ বাংলাদেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব এবং শহীদ বীর মুক্তিযোদ্ধা ও অন্যান্য শহীদের আত্মত্যাগের প্রতীক। জাতীয় স্মৃতিসৌধ শহীদের লালিত স্বপ্নের সুখী বাংলাদেশ গড়ার অংগীকার র‌্যাব সদস্যদের স্মরণ করিয়ে দেয়।

৪। ধানের শীষ । র‌্যাবের মনোগ্রামের স্মৃতিসৌধের প্রতিকৃতির দুইপার্শ্বের ধানের শীষ কৃষি প্রধান বাংলাদেশের ঐতিহ্যের প্রতিচ্ছবি এবং সুখী ও সমৃদ্ধ বাংলাদেশের প্রতীক।

৫। অগ্রগতির চাকা। র‌্যাবের মনোগ্রামের স্মৃতি উৎকীর্ণ স্মৃতিসৌধ এর নিচে অবস্থিত ধাতব চাকা সময়ের সাথে দ্রুত উন্নয়নশীল বাংলাদেশের অগ্রগতির প্রতীক । যে কোন মূল্যে সন্ত্রাস নির্মূল করে হৃদয়ের দেশ বাংলাদেশের অর্থনীতির অগ্রগতির চাকা অব্যাহত রাখতে র‌্যাব প্রতিজ্ঞাবদ্ধ।

৬। র‌্যাবের মূলমন্ত্র। মনোগ্রামের সর্বনিম্নে উৎকীর্ণ বাংলাদেশ আমার অহংকার র‌্যাবের মূলমন্ত্র। এ মূলমন্ত্রে উজ্জীবিত র‌্যাবের প্রতিটি সদস্য সন্ত্রাসমুক্ত সুখী এবং সমৃদ্ধ দেশ গড়ার জন্য সর্বদা বজ্র কঠিন সংকল্পবদ্ধ।

উল্লেখযোগ্য কার্যক্রম

সন্ত্রাসী গেপ্তার

এখানে র‌্যাবের উল্লেখযোগ্য কিছু গ্রেপ্তারের বিস্তারিত বিবরণ দেয়া হল:

আসামীর নামঅভিযোগগ্রেফতারতথ্যসূত্র
মুফতি হান্নানবর্তমান প্রধানমন্ত্রী ও তৎকালীন বিরোধীদলীয় নেত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যার ষড়যন্ত্রকারী এবং নিষিদ্ধঘোষিত সংগঠন হরকাতুল জিহাদের প্রথম সারির নেতা।১ অক্টেবর ২০০৫[১]
পিচ্চি হান্নানসন্ত্রাস, চাঁদাবাজী২৬ জুন ২০০৪, পালিয়ে যাবার সময় হত্যা করা হয়[২]
দেবাশীষপিচ্চি হান্নানের সহযোগীক্রসফায়ারে মৃত, ২৪ জুন ২০০৪[৩]
মোল্লা শামীমতিনটি হত্যাসহ ১০টি মামলার আসামীক্রসফায়ারে মৃত, ৬ সেপ্টেম্বর ২০০৪[৪]
সাহেব আলী১৭ আগস্ট ২০০৫ সালের দেশব্যপী বোমা হামলার জঙ্গীবাদী লিফলেট প্রকাশকারী এবং বিতরণকারী১৭ সেপ্টেম্বর ২০০৫[৫]
সাহাবুদ্দীনচাঁদাবাজীহত্যা করা হয়, ২৬ অক্টোবার ২০০৪[৬]
সৈয়দ মনির হোসেন২টি হত্যাসহ বিভিন্ন অপরাধমূলক কর্মকান্ডক্রসফায়ারে মৃত, ১১ মার্চ ২০০৫[৭]
শাহজাহানহত্যা, ধর্ষণ, ছিনতাইসহ ৫টি মামলার আসামীক্রসফায়ারে মৃত, ১২ জানুয়ারি ২০০৫[৮]
রফিকুল ইসলামআত্মঘাতি বোমা হামলা দলের সদস্য, নারায়ণগঞ্জ জেএমবি কমান্ডার২৭ ডিসেম্বর ২০০৫[৯]
সুমন আহমেদ মজুমদারচাঁদাবাজীক্রসফায়ারে মৃত[১০]
একরামুল হকইসলামিক জঙ্গীডিসেম্বর ২০০৫[১১]
হাসিবুল১২টি হত্যাসহ ১৬ মামলার আসামী২৬ জানুয়ারি ২০০৫, পালিয়ে যাবার সময় হত্যা করা হয়[১২]

অস্ত্র সরঞ্জাম

র‍্যাব সদস্যগন

র‍্যাব সদস্যগণ Police এর থেকে ভালো অস্ত্র ও যন্ত্রপাতি ব্যবহার করেন। নিচের অস্ত্র ও যন্ত্রপাতি র‍্যাব সদস্যগণ ব্যবহার করেন।

নামটাইপক্যালিবারস্থান
ব্রাওনিং এম ১৯১১সেমি-অটোমেটিক পিস্তল.৪৫এসিপি যুক্তরাষ্ট্র
SIG Sauer P226/228/229সেমি-অটোমেটিক পিস্তল৯মিমি জার্মানি[যাচাই প্রয়োজন]

 

বিডি-০৮এসাল্ট রাইফেল৭.৬২মিমি চীন
টাইপ ৫৬এসাল্ট রাইফেল৭.৬২মিমি চীন
হেকলার & কক এমপি-৫সাব মেশিনগান৯মিমি জার্মানি
উজিসাব মেশিনগান৯মিমি ইসরায়েল
টাইপ ৮৫স্নাইপার রাইফেল৭.৬২মিমি চীন
রেমিংটন ৮৭০সেমি-অটোমেটিক শটগান১২গজ যুক্তরাষ্ট্র
টাইপ ৯৭-১সেমি-অটোমেটিক শটগান১২গজ চীন
টাইপ ৬৯-১রকেট-প্রপেলড গ্রেনেড৪০ মিমি চীন